পুঁজিবাজারে সূচক বেড়েছে

0
32

অর্থনৈতিক রিপোর্টার : সপ্তাহের প্রথম কার্যদিবস রবিবার উত্থানে শেষ হয়েছে উভয় শেয়ারবাজারের লেনদেন। এদিন উভয় শেয়ারবাজারের সব সূচক বেড়েছে। একইসঙ্গে বেড়েছে লেনদেনে অংশ নেয়া বেশিরভাগ প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিট দর। তবে টাকার পরিমাণে লেনদেন আগের কার্যদিবস থেকে কমেছে।

জানা গেছে, ডিএসইর প্রধান সূচক ডিএসইএক্স ২০ পয়েন্ট বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৫২৭৯ পয়েন্টে। অপর সূচকগুলোর মধ্যে শরিয়াহ সূচক ৫ পয়েন্ট এবং ডিএসই-৩০ সূচক ৯ পয়েন্ট বেড়ে দাঁড়িয়েছে যথাক্রমে ১২১৫ ও ১৮৬৮ পয়েন্টে।

ডিএসইতে ৫২৭ কোটি ৪৪ লাখ টাকার শেয়ার ও ইউনিট লেনদেন হয়েছে। যা আগের দিন থেকে ৬৬৯ কোটি টাকা কম। আগের দিন লেনদেন হয়েছিল ৫৯৩ কোটি টাকা।

এদিকে ডিএসইতে লেনদেন হওয়া ৩৩৩টি কোম্পানির মধ্যে ১৪৯টি বা ৪৪.৭৪ শতাংশ প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিটের দাম বেড়েছে। অন্যদিকে দাম কমেছে ১৩১টি বা ৩৯.৩৪ শতাংশ কোম্পানির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ৫৩টি বা ১৯.৯২ শতাংশ কোম্পানির।

টাকার অঙ্কে ডিএসইতে সবচেয়ে বেশি লেনদেন হয়েছে খুলনা পাওয়ারের। এ দিন কোম্পানির ৩৩ কোটি ৪১ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। লেনদেনে দ্বিতীয় স্থানে থাকা এসকে ট্রিমসের ২২ কোটি ২৩ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে এবং ১৭ কোটি ৯৭ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেনে তৃতীয় স্থানে রয়েছে বিবিএস কেবলস। লেনদেনে এরপর রয়েছে – শেফার্ড ইন্ডাস্ট্রিজ, শাশা ডেনিম, ইউনাইটেড পাওয়ার, ইফাদ অটোস, ইনটেক, সায়হাম কটন এবং প্রাইম টেক্সটাইল।

অপর শেয়ারবাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের (সিএসই) সার্বিক সূচক সিএএসপিআই এদিন ৫৫ পয়েন্ট বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১৬ হাজার ১৫৬ পয়েন্টে। এদিন সিএসইতে হাত বদল হওয়া ২৪৪টি প্রতিষ্ঠানের মধ্যে শেয়ার দর বেড়েছে ১৩১টির, কমেছে ৮৭টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ২৬টির দর। সিএসইতে মোট ১৯ কোটি ৮৫ লাখ টাকার শেয়ার ও ইউনিট লেনদেন হয়েছে।