দলীয় সরকারের অধিনে কোন নির্বাচনে অংশ নেবেন না সরোয়ার

0
30

অনলাইন ডেস্ক : বরিশাল সদর আসনে সকল কেন্দ্র থেকে বিএনপি প্রার্থী’র এজেন্ট বের করে দেয়া এবং কেন্দ্র দখল নিয়ে নৌকায় সিল পেটানোর অভিযোগ করেছেন বিএনপি’র ধানের শীষের প্রার্থী ও কেন্দ্রীয় বিএনপি যুগ্ম মহাসচিব মজিবর রহমান সরোয়ার। তাই পরবর্তীতে দলীয় সরকারের অধিনে আর কোন নির্বাচনে অংশ না নেয়ার ঘোষনা দিয়েছেন তিনি।

নির্বাচন শুরুর প্রায় পাঁচ ঘন্টার মাথায় বরিশাল প্রেসক্লাবে বিএনপি’র উদ্যোগে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে একথা বলেন বরিশাল-৫ (সদর) আসনে বিএনপি’র প্রার্থী মজিবর রহমান সরোয়ার।

এসময় তিনি আরো বলেন, ভোটের দিনেও আমাদের কর্মীদের উপরে হামলা করেছে আওয়ামীলীগ। সকালে এজেন্টদের কেন্দ্রে ঢুকতে দেয়া হয়নি। যারা ছিলো তাদেরও মারধর করে বের করে দেয়া হয়েছে। সকাল ১০টার মধ্যেই ভোটের ব্যালট শেষ হয়ে গেছে। বিএনপি নেতা-কর্মীদের উপর গুলি চালানো হয়েছে। আমাদের বহু নেতা-কর্মী আহত হয়েছে। মহানগর ছাত্রদল সভাপতি রেজাউল করিম রনি, ইউনিয়ন ছাত্রদল সভাপতি ও সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান জিয়াউল ইসলাম সাবু, জেলা ছাত্রদলের সাংগঠনিক সম্পাদক সোহেল রাঢ়ী সহ পুলিশ আটক করেছে আরো অনেককে।

বরিশালে ভোটের পরিস্থিতি নেই দাবী করে মজিবর রহমান সরোয়ার বলেন,একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন নানা কারনেই গুরুত্বপূর্ণ। তাই প্রধান নির্বাচন কমিশনার ও প্রধান মন্ত্রীর কথায় আমরা আশ্বস্থ হয়ে দলীয় সরকারের অধিনে নির্বাচনে অংশ নিয়েছিলাম। ভেবে ছিলাম সেনা বাহিনী মোতায়েনের পরে লেভেল প্লেয়িং ফিল্ড সৃষ্টি হবে। কিন্তু সেনাবাহিনীকে রিটার্নিং কর্মকর্তার মাধ্যমে আটকে দেয়া হয়েছে।

প্রধান নির্বাচন কমিশনার বলেছিলেন কেন্দ্রের এজেন্টদের নিরাপত্তার দায়িত্ব তিনি নিবেন। ভোটারদের নিশ্চয়তা দিবেন। কিন্তু তা হয়নি। আওয়ামী লীগ আমাদের এজেন্টদের বের করে দিয়ে ভেতরে বসে তারা সিল পেটাচ্ছে। যে কারনে ভোটাররা উৎসহ উদ্দিপনা নিয়ে কেন্দ্রে গেলেও তারা ভোট দিতে পারেনি। আমরা বিষয়টি রিটার্নিং কর্মকর্তা এবং পুলিশ প্রশাসনকে জানিয়েছি। কিন্তু তাদের কাছ থেকে কোন সহযোগিতা পাইনি।

সংবাদ সম্মেলনে অন্যান্যদের মধ্যে বিএনপি’র বিভাগীয় সাংগঠনিক সম্পাদক এ্যাডভোকেট বিলকিছ আক্তার জাহান শিরিন, উত্তর জেলা বিএনপি’র সভাপতি মেজবাহ উদ্দিন ফরহাদ, দক্ষিণ জেলা বিএনপি’র সাধারণ সম্পাদক আবুল কালাম শাহীন সহ অন্যান্যনেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।