দক্ষিণাঞ্চলের উন্নয়নে হাসানাতের মন্ত্রীত্ব একান্ত প্রয়োজন

0
80

অনলাইন ডেস্ক : একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বিপুল আসনে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ জয়লাভের পর খুব শীঘ্রই মন্ত্রিসভা গঠনের জোরালো পদক্ষেপ লক্ষ্য করা গেছে। আজ বৃহস্পতিবার (৩ জানুয়ারি) শপথ গ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়েছে। আর আগামী রোববার মন্ত্রিসভা গঠনের আভাস পাওয়া গেছে।

এই মন্ত্রিসভায় বরিশাল আওয়ামী লীগের রাজনৈতিক অভিভাবক আবুল হাসানাত আবদুল্লাহ’র স্থান পাওয়া না পাওয়ার বিষয়টি ব্যাপক আলোচনায় এসেছে। বিশেষ করে এবার তাকে কোনো একটি মন্ত্রণালয়ের দায়িত্বে বা প্রতিমন্ত্রী করার জোরালো গুঞ্জন শোনা যাচ্ছে রাজনৈতিক অঙ্গনে। যদিও কেন্দ্র থেকে এখন পর্যন্ত কোনো ধরনের সংকেত আসেনি বরিশালে। বরিশালের স্থানীয় আওয়ামী লীগ তাদের নেতাকে (আবুল হাসানাত আবদুল্লাহ) একটি মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব দেওয়ার দাবি হাইকমান্ডে রেখেছেন বলে জানা গেছে। আবুল হাসানাত আবদুল্লাহ বর্তমানে মন্ত্রিসভায় না থাকলেও সমমর্যাদা নিয়ে পার্বত্য শান্তি চুক্তি বাস্তবায়ন কমিটির আহ্বায়ক হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন। ফলে এখান থেকেই কোনো মন্ত্রণালয়ে দায়িত্ব পাওয়া আপাদমস্তক এই নেতার জন্য অনেকাংশে সহজ বলে অনুমেয়।

অবশ্য বরিশাল জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আবুল হাসানাত আবদুল্লাহ’র মন্ত্রিসভায় স্থান পাওয়া না পাওয়া নিয়ে বর্তমান সরকারের মেয়াদের শেষ দিকে একটি জোরালো আলোচনা শোনা যাচ্ছিলো। বিশেষ করে শেষান্তে মন্ত্রিসভায় রদবদলের আগে এই আলোচনা বরিশাল তথা গোটা দক্ষিণাঞ্চলে শোনা যাচ্ছিল। ফলে তখন বরিশালবাসীও তাকে মন্ত্রিসভায় দেখেতে চেয়ে দাবি রেখেছিলো। কিন্তু এই সাংসদকে কোনো মন্ত্রণালয়ে না দিয়ে পার্বত্য শান্তি চুক্তি বাস্তবায়ন কমিটির আহ্বায়ক করা হয়। তবে এতে বরিশালের জনগণের প্রত্যাশা পূরণ না হওয়ায় এবার মন্ত্রিসভা গঠনের আগে হাসানাতকে কোনো মন্ত্রণালয়ের দায়িত্বে দেয়ার বিষয়টি নিয়ে আলোচনা জোরালো রূপ নিয়েছে। বরিশাল আওয়ামী লীগের একাধিক নেতা জানিয়েছেন, রাজনৈতিক গুরু হাসানাতকে কোনো মন্ত্রণালয়ের দায়িত্বে রাখার দাবি কেন্দ্রে উপস্থাপন করা হয়েছে। কারণ এই নেতা বরিশাল-১ আসন থেকে পর পর ৩ বার সাংসদ নির্বাচিত হয়েছেন।

পাশাপাশি বরিশাল অঞ্চলে আওয়ামী লীগের রাজনীতি ধরে রাখতে বিশেষ ভূমিকা রাখছেন। ফলে নেতা-কর্মীদের পাশাপাশি এই অঞ্চলের জনগণও হাসানাতকে মন্ত্রিসভায় দেখতে চাইছে। বিশেষ করে হাসানাত মন্ত্রী হলে বরিশাল তথা গোটা বিভাগে উন্নয়ন কর্মযজ্ঞ আরও ত্বরান্বিত হওয়ার বিষয়টি ধারণা করা হচ্ছে। যদিও হাসানাতকে মন্ত্রিসভায় আনা না আনা নিয়ে কেন্দ্রে কোনো আলোচনা বা ভাবনা শোনা যায়নি। তবে দুর্যোগ ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী মোফাজ্জেল হোসেন মায়া ও অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আব্দুল মুুহিত একাদশ সংসদ নির্বাচনে অংশ না নেয়ায় এ দুটি মন্ত্রণালয় ফাঁকা হয়েছে।

এ দুটি মন্ত্রণালয়ের দায়িত্বে নতুন কোনো সাংসদকে নিয়ে আসার সম্ভাবনা রয়েছে। পাশাপাশি বেশ কয়েকটি মন্ত্রণালয়ে প্রতিমন্ত্রী নিয়োগ করার বিষয়টিও আওয়ামী লীগের হাই কমান্ডে শোনা গেছে। ফলে ধারণা করা হচ্ছে বরিশাল-১ আসনের সাংসদ আবুল হাসানাত আবদুল্লাহকে ওই দুটি মন্ত্রণালয়ের একটিতে বা প্রতিমন্ত্রী হিসেবে দেখা যেতে পারে। এই বিষয়ে বরিশাল মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি অ্যাড. গোলাম আব্বাস চৌধুরী দুলাল জানিয়েছেন, তাদের নেতাকে একটি মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব দেওয়ার দাবি হাইকমান্ডে রেখেছেন। ফলে আশা করেন এবার তাকে কোনো একটি মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী হিসেবে দেখার সৌভাগ্য হতে পারে বরিশালবাসীর।

তথ্য ও সূত্র : বরিশাল ক্রাইম নিউজ